• খেলাধুলা
  • বিশ্বকাপ ফাইনালের আগে আহমেদাবাদে হোটেল ভাড়া লাখ টাকা

বিশ্বকাপ ফাইনালের আগে আহমেদাবাদে হোটেল ভাড়া লাখ টাকা

প্রকাশিত: ১২:৪৯ অপরাহ্ণ , ১৮ নভেম্বর ২০২৩, শনিবার , পোষ্ট করা হয়েছে 7 months আগে

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের আগে ব্যাপক আকারে বেরে গিয়েছিল আহমেদাবাদের হোটেল ভাড়ায়। হাইভোল্টেজ এই ম্যাচ দেখতে ৫ থেকে ১৫ গুণ পর্যন্ত বেশি ভাড়া দিয়ে হোটেল কক্ষ ভাড়া দেওয়া হয়েছিল। সেবার বাধ্য হয়ে হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষার নাম করেও রাত পার করেছেন অনেকেই। রোববারের ফাইনাল ঘিরে আবার ফিরে এসেছে সেই একই চিত্র।

১৯ নভেম্বর নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে শিরোপার লড়াইয়ে নামবে ভারত। যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। আর এই ফাইনাল দেখতে আগ্রহের কমতি নেই মানুষের। স্বাভাবিকভাবেই তাই এবার আরও একবার চড়া দামে বুক করতে হচ্ছে হোটেলকে।

আহমেদাবাদে তিন তারকা ও পাঁচ তারকা মিলে প্রায় ৫ হাজার হোটেল কক্ষ রয়েছে। পুরো গুজরাট হিসেব করলে সংখ্যাটি ১০ হাজারের কাছাকাছি। সাধারণ হোটেলের সংখ্যাও একেবারে কম নয়। এখন পর্যন্ত সাধারণ হোটেলের অবস্থা কিছুটা মানানসই হলেও তিন তারকা, চার তারকা বা পাঁচ তারকা হোটেলে খরচ বেড়েছে কয়েকগুণ।

আহমেদাবাদের ভিভান্তা হোটেলে দুদিনের জন্য ভাড়া দিতে হচ্ছে প্রায় ৩ লাখ রুপি, ম্যারিয়টের খরচ প্রায় ২ লাখের কাছাকাছি। হোটেল তাজে দুদিন থাকতে হলে গুনতে হবে প্রায় লাখ রুপি করে। বেশ কিছু হোটেলে সেটির দাম পড়েছে ৪ লাখ রুপির একটু বেশি।

ফাইনালের আগে ৩০-৪০ হাজার মানুষ আহমেদাবাদে আসবেন বলে ধারণা করছেন সেখানক্র হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্ট ফেডারেশনের সভাপতি নরেন্দ্র সোমানি

তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপ ফাইনালের আগ্রহ কেবল ভারতে, বিষয়টি এমন নয়। দুবাই, অস্ট্রেলিয়া এবং সাউথ আফ্রিকার মতো দেশ থেকে মানুষ এসেও ম্যাচটি দেখতে চায়। আহমেদাবাদে প্রায় ৫ হাজার তিন তারকা এবং পাঁচ তারকা হোটেল আছে। আপনি যদি পুরো গুজরাট হিসেব করেন তাহলে ১০ হাজার হবে। দেখুন নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে ১ লাখ ২০ হাজারের বেশি মানুষ খেলা দেখতে পারে। আমরা প্রত্যাশা করছি ম্যাচটি দেখার জন্য বাইরে থেকে ৩০-৪০ হাজার মানুষ আসবে।’

‘ইন্ডিয়ান অ্যাসোসিয়েশন অব টুর অপারেটর্স’-এর গুজরাটের চেয়ারম্যান রণধীর সিং বাগেলা শুক্রবার জানান, আহমেদাবাদের হোটেলে এক রাত থাকার খরচ গড়ে ১০ হাজার টাকা। হোম-স্টে ৩৫ হাজার, চারতারা মানের হোটেলের ভাড়া অন্তত ৭০ হাজার।

বেড়েছে যাতায়াত খরচও। চেন্নাই থেকে আহমেদাবাদে যেতে খরচ পড়তো ৫ হাজার রুপি। ভারত-অস্ট্রেলিয়ার ফাইনালের আগে সেই টিকিটের দাম এখন ১৬-২৫ হাজার রুপি। ট্রাভেল অ্যাজেন্ট মানুভাই পাঞ্চলি সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছেন, বাড়তি চাহিদার কারণে টিকিটের দাম তিন থেকে পাঁচ গুন বেড়েছ।।

অবস্থা এমন, সিঙ্গাপুর থেকে কলকাতায় যাতায়াতের দু’জনের টিকিটের দাম যেখানে ৮০ হাজার টাকা। কাছাকাছি, সেখানে কলকাতা থেকে আহমেদাবাদে এখন দু’জনের যাতায়াতের জন্য লাগছে প্রায় ৯৬ হাজার টাকা!