ঘরে স্ত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ, পলাতক স্বামী

প্রকাশিত: ৯:৩৯ অপরাহ্ণ , ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩, মঙ্গলবার , পোষ্ট করা হয়েছে 10 months আগে

নওগাঁর বদলগাছীতে স্বামীর নির্যাতনে এক গৃহবধূর আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার কেশাইল হঠাৎ পাড়া গ্রামে ঘটনাটি ঘটে। মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। ঘটনার পর থেকে স্বামী পতালত রয়েছে।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, হঠাৎ পাড়া গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে সোহেল রানা ( ৩০) ৫বছর পূর্বে একই উপজেলার লালুহার গ্রামের আবু বক্করের মেয়ে জেসমিন আক্তার সুমি (২৬) কে বিয়ে করে। তাদের ঘরে ২ বছরের এক কন্যা সন্তান রয়েছে। এর মাঝে সোহেল রানা পরকিয়ায় জরিয়ে পরে।

এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মাঝে অশান্তি সৃষ্টি হয়। পারিবারিক অশান্তির কারনে সোহেল এর স্ত্রী চাকুরী করার ইচ্ছে পোষণ করলে সোমবার দিবাগত রাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে তর্কবিতর্ক হয়। এক পর্যায় সোহেল তার স্ত্রীকে মারপিট করে এবং গলা চেপে ধরে। রাগ- অভিমানে সোহেলের স্ত্রী সুমি পাশের ঘরে গিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেচিয়ে আত্মহতা করে থাকতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

নিতহ গৃহবধূর বাবা আবু বক্কর বলেন, আমার মেয়েকে মাঝে মধ্যেই শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করা হতো। মেয়েকে নির্যাতন করে মেরে ফেলেছে হয়তো। হোসেল রানা দ্রুত আটক করে দ্রুত তার শাস্তির দাবি করছি।

অভিযুক্ত সোহেল বদলগাছী প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়ে কার্যসহকারী পদে কর্মরত। ঘটনার পর থেকে সে পলাতক রয়েছে।

এবিষয়ে বদলগাছী থানার অফিসার ইনচার্জ ( ওসি) আতিয়ার রহমান বলেন, খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় আত্মহত্যায় প্ররোচনার একটি মামলা করবে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে। বর্তমানে সোহেল পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য লিখুন

আরও খবর