সরাইলে হঠাৎ পেঁয়াজের দাম বেড়ে দ্বিগুণ

প্রকাশিত: ৭:৪০ পূর্বাহ্ণ , ২১ মার্চ ২০২০, শনিবার , পোষ্ট করা হয়েছে 4 years আগে

মোঃ তাসলিম উদ্দিন সরাইল প্রতিনিধিঃ রিস্কা চালক এমন করে বলছিল, সকালে দেখছি চল্লিশ টাকার পেঁয়াজ বিকেলে ৮0 টাকা?ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইলে আবার অস্থির হয়ে উঠেছে পেঁয়াজের বাজার। হঠাৎ করে উপজেলা বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে। পেঁয়াজের পাশাপাশি দাম বেড়েছে আদা, রসুন ও আলুর। করোনা ভাইরাস আতঙ্ককে পুঁজি করে এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ীরা এসব পণ্যের দাম বাড়িয়েছে বলে অভিযোগ ক্রেতাদের।শুক্রবার (২০ মার্চ) সরাইল উপজেলার সদর সহ বিভিন্ন বাজারে ক্রেতা ও বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ায় অনেকে পেঁয়াজ, আলু ও রসুন কিনে মজুদ করছেন। ফলে এসব পণ্যের চাহিদা বেড়ে গেছে। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে ব্যবসায়ীরা দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন। সরাইল বাজারে দেখা যায়, দেশি পেঁয়াজের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৭৫-৮০ টাকা। একই দামে পেঁয়াজ বিক্রি হতে দেখা গেছে কালিকচ্ছ ও বিশ্বরোড়ে বিভিন্ন খুচরা বাজারে। যা বৃহস্পতিবার ও ৪০-৪৫ টাকা কেজি বিক্রি হয়।এসব বাজারে দেশি রসুনের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১২০-১৩০ টাকায়, যা আগে ছিল ৭০-৮০ টাকা। আমদানি করা রসুন বিক্রি হচ্ছে ১৮০-১৯০ টাকা, যা বৃহস্পতিবার ছিল ১৪০-১৫০ টাকা। ১০০-১২০ টাকা কেজি বিক্রি হওয়া আদার দাম বেড়ে হয়েছে ১৭০-১৮০ টাকা। আর ১৮-২০ টাকা কেজি বিক্রি হওয়া গোল আলু বিক্রি হচ্ছে ২৫-২৮ টাকা।এসব পণ্যের দাম বাড়ার বিষয়ে একাধিক ব্যবসায়ী বলেন, করোনাভাইরাস আতঙ্কে হঠাৎ পেঁয়াজ, রসুন, আদা, আলুর চাহিদা বেড়ে গেছে। চাহিদা বাড়ায় আড়ৎ থেকে এসব পণ্যের দাম বাড়িয়ে দেয়া হয়েছে। আড়তে দাম বাড়ার কারণে আমাদের বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে। মানুষ যদি কম পরিমাণে এসব পণ্য ক্রয় করে তাহলে আমাদের ধারণা কিছুদিনের মধ্যেই আবার দাম কমে যাবে।
তবে এই দিকে ভুক্তভোগীরা হঠাৎ বাজারের অস্থিরতা হুয়াই, বাজার মনিটরিংয়ে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেন।

মন্তব্য লিখুন

আরও খবর