সরাইলে সদ্য বিদায়ী এএসআই শাহজালাল’র আবেগঘন স্ট্যাটাস ও আমাদের অনুভূতি

প্রকাশিত: ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ , ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বুধবার , পোষ্ট করা হয়েছে 4 years আগে
ছবি - ফেইসবুক থেকে সংগৃহীত

মো: তসলিম উদ্দিন, সরাইল প্রতিনিধি : সদ্য বিদায়ী ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইল থানার এএসআই শাহজালাল। সরাইল থানায় যোগদানের পর থেকেই তার দক্ষতা ও বিচক্ষনতায় প্রশংসিত হয়েছিলেন সর্বমহলে। সম্প্রতি বদলি জনিত কারণে অন্যত্র যোগদান করতে তিনি এই কর্মস্থল থেকে বিদায় নিয়েছেন।

মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারী) তার ফেইসবুক টাইমলাইনে সরাইলের ভূয়সী প্রশংসা করে তিনি একটি আবেগঘন স্ট্যাটাস দেন। স্ট্যাটাসটি সরাইলের বিভিন্ন স্থরের মানুষের মনে নাড়া দিয়েছে। অনেকের মতো আমার মনেও এক অন্যরকম অনুভূতি উপলব্দি করেছি। তৃপ্ত মনে উপলব্দি হচ্ছে, একজন সরকারী প্রশাসনিক কর্মকর্তাকে আমরা (সরাইলবাসী) ভালোবাসতে পেরেছিলাম বলেই তিনি আমাদের ভুলতে পারছেন না।

তার ভালো গুণাবলি ও সততার সাথে দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে খুব সহজেই তিনি স্থানীয়দের মনে জায়গা করে নিয়েছিলেন। সাংবাদিকদের সাথে প্রশাসনের কর্মকর্তাদের কিছুটা দা-কুমড়া সম্পর্ক থাকলেও তাঁর সাথে ছিলো স্থানীয় সাংবাদিকদের বেশ সখ্যতা। তিনি ছিলেন একজন সাংবাদিকবান্ধব পুলিশ। তাঁর কর্মস্থল সরাইলের সর্বস্তরের মানুষ তাঁকে অনেক ভালোবাসতো। এছাড়া সর্বস্তরের মানুষের কাছে তিনি ‘ভালো মানুষ’ হিসেবেই পরিচিত ছিলেন।

মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারী) দেওয়া নিজের ফেইসবুক টাইমলাইনে সরাইলকে ঘিরে তাঁর আবেগঘন স্ট্যাটাসটি নিচে হুবহু তুলে ধরা হলো-

প্রিয় সরাইলবাসী…..আসসালামু আলায়কুম।।তিন অক্ষরের ছোট্ট একটি শব্দ-বিদায়। কিন্তু শব্দটির আপাদমস্তক বিষাদে ভরা। শব্দটা কানে আসতেই মনটা কেন যেন বিষণ্ণ হয়ে ওঠে। বিদায় হচ্ছে বিচ্ছেদ। আর প্রত্যেক বিচ্ছেদের মাঝেই নিহিত থাকে নীল কষ্ট।প্রিয় সরাইলবাসী………
আপনাদের ভালবাসা আমি ভুলতে পারবনা।আর ভুলব ও না। অপরাধ দমনে এবং আমার প্রতিটি পদক্ষেপে আপনারা আমাকে যে ভাবে সহযোগিতা করেছেন।আমি আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞ।

চুরি-ডাকাতি রোধ, ছিনতাই প্রতিরোধ, দাঙ্গা-হাঙ্গামা ইত্যাদি সমাজ বিরোধী কর্মকান্ড প্রতিরোধসহ বিভিন্ন জনসভা, নির্বাচনী দায়িত্ব পালনে আমার সহ-কর্মীদের পাশাপাশি সরাইলের জনগনকেও আমার পাশে পেয়েছি।

সাংবাদিক ভাইয়েরাও আমার ভালো কাজে উৎসাহ দিয়েছেন। আমি সাংবাদিক ভাইদের দ্বারা কোন ধরনের কষ্ট পাইনি।আপনাদের ভালবাসায় আমি মুগ্ধ। সরাইলে আমি সব সময় মন থেকেই কাজ করেছি। আমি চেষ্টা করেছি অত্যাচারিত মানুষগুলোর দুঃখ কষ্ট দূর করতে।
আমি সরাইলে মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে, সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে, চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে কাজ করেছি।”হয়তো এই সরাইলে আমার আর আসা হবেনা। আবার আসতেওপারি।

কিন্তু, সরাইলের মানুষের সাথে আমার যেই রক্তের সম্পর্ক এবং ভালোবাসার আদান প্রদান ঠিকই অটুট থাকবে। আমি সব সময় আমার সহকর্মীদের সমস্যা জানতে চাইতাম; তাদের সঙ্গে একসাথে খাবার রান্না করে খেতাম।
হয়তো তাদের সাথে আর এভাবে খাবার রান্না করে খাওয়া হবে না। এটাই কিন্তু দুর্ভাগ্য।
আসলে দুর্ভাগ্য নয়, এটাই নিয়তি।
হয়তো বা এক সময় আমাকে চলে যেতে হতোই
তাই আমি চলে যাচ্ছি।

“আমি কৃতজ্ঞতা জানাই বাংলাদেশ পুলিশ আমার সিনিয়র স্যার দের প্রতি। যাদের দেখানো পথে আমি চলেছি,এবং বাকি পথটুকু এইভাবেই চলতে চাই।

আমি আরো কৃতজ্ঞতা জানাই সরাইলবাসীর প্রতি যাদের ভালবাসা আর অনুপ্রেরণা —
আমার চলার পথকে আরো গতিময় করে তুলেছে।

আমার অনুরোধ থাকবে আমার ব্যক্তিগত ব্যাপার নিয়ে যদি কোন দিন খারাপ আচরণ করে থাকি তারজন্য আমাকে হ্মমা করে দিবেন। আমার জন্য দোয়া করবেন সবাই।