সরাইলে বেওয়ারিশ (ভাদাইমা) কুকুর আতঙ্কে এলাকাবাসী

প্রকাশিত: ৫:৫৭ অপরাহ্ণ , ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বুধবার , পোষ্ট করা হয়েছে 4 years আগে
ছবি - প্রতিকী

মো: তসলিম উদ্দিন, সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে বেওয়ারিশ (ভাদাইমা) কুকুরের দৌরাত্ম্যে অতিষ্ঠ হয়ে উঠছে এলাবাসী। রাতের নির্জনে ওইসব কুকুরগুলি একাধিক গলি দখল করে নিচ্ছে। এতে করে রাস্তায় চলাচলে ভয়ে আতঙ্কিত এলাকাবাসী।

সরেজমিনে দেখা যায়,শুধু পথচারীদের দেখেই নয় চলন্ত যানবাহন দেখেও মাঝেমধ্যে ধেয়ে আসছে উগ্র মেজাজি কুকুরগুলো। সম্প্রতি উপজেলার সদর ও শাহজাদাপুর ইউনিয়নে কুকুরের কামড়ে আক্রান্ত হয়ে দুইজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। কুকুরের আক্রমণ থেকে নিস্তার পেতে কুকুর নিধন অথবা জলাতঙ্ক মুক্ত করার দাবী এলাকাবাসীর।

সরাইল উপজেলা স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তারা বলেন, বেওয়ারিশ কুকুর বা পথ কুকুরের নিয়ন্ত্রণ করার বিষয়ে ইতোমধ্যে জলাতঙ্ক প্রতিরোধে ঘুড়ে ঘুড়ে কুকুরকে ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে। কুকুর মারা বা নিধণ করার বিষয়ে উচ্চ আদালতের নির্ষেধাজ্ঞা আছে। ব্যাপক হারে বেওয়ারিশ ও পথ কুকুর বেড়েছে। তবে কুকুর কামড়ালে যাতে জলাতঙ্ক রোগ না হয় সে জন্য কুকুরকে ভ্যাকসিন দেয়া হচ্ছে। যে কুকুরকে ভ্যাকসিন দেয়া হয় সেই কুকুরকে লাল রং দিয়ে চিহ্নিত করে রাখা হয়। আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই।

এদিকে উপজেলার বিভিন্ন রাস্তায় দল বেঁধে কুকুরের দল ঘুরে বেড়াচ্ছে। রাতেরবেলা উপজেলার বাজারগুলো কুকুরদের দখলে চলে যাচ্ছে। কুকুরের দাপটে কেউ নিরাপদ নেই। স্কুলপড়ুয়া বাচ্চা থেকে, মহিলা, বয়স্কসহ অনেকেই কুকুরের আক্রমণের শিকার হচ্ছে।

সরাইল উপজেলার দিলু মিয়া বলেন, বেওয়ারিশ বা ভাদাইমা কুকুরের অত্যাচারে বাড়ির বাইরে বেরুনই আতঙ্কের ব্যাপার হয়ে গিয়েছে। রাস্তাঘাটে বাজারে ও গ্রাম অঞ্চলের অলিগলিতে কুকুরের কামড় খেয়ে অনেককেই ইঞ্জেকশন নিতে হচ্ছে। উপজেলা সরকারি হাসপাতালে ভ্যাকসিন পাওয়া যায়না।

সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ডাক্তার মোঃ নোমান মিয়া এ প্রতিবেদককে জানান, কুকুর কামড়ালে ক্ষতের সৃষ্টি হয়। কুকুর কামড়ালে সেই ক্ষত স্থান সাবান দিয়ে দ্রুত ধুয়ে ফেলতে হবে। তারপর তাকে যতদ্রত সম্ভব চিকিৎসকের কাছে নিতে হবে। তবে কুকুরে কামড়ালে ভ্যাকসিন দেয়াটা ভালো।

তিনি আরো জানান, কুকুরের ভ্যাকসিন জেলা হাসপাতালে সরকারি ভাবে দেওয়া হয়। বতর্মানে সরাইলে বেওয়ারিশ কুকুর বা পথ কুকুরের নিয়ন্ত্রণ করার বিষয়ে জলাতঙ্ক প্রতিরোধে ঘুড়ে ঘুড়ে কুকুরকে ভ্যাকসিন দেয়া হচ্ছে বলে জানান।

মন্তব্য লিখুন

আরও খবর