সরাইলে টিকা কেন্দ্রে শিক্ষার্থীদের ভিড়

প্রকাশিত: ৮:৩০ অপরাহ্ণ , ১২ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার , পোষ্ট করা হয়েছে 7 months আগে

মো. তাসলিম উদ্দিন সরাইল( ব্রাহ্মণবাড়িয়া):  সরাইল উপজেলায় শিক্ষার্থীদের কোভিড-১৯ টিকা দেওয়া হচ্ছে। গত রবিবার থেকে উপজেলার ২২ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া হচ্ছে বলে জানা যায়।আজ বুধবার(১২জানুয়ারি) সরাইল অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে এ টিকা কেন্দ্রে শিক্ষার্থীদের উপচেপড়া ভিড় দেখা যায়।যাদের বয়স ১২ থেকে ১৮ বছর তাদের গত ৯ জানুয়ারি থেকে ফাইজার টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে। এ কার্যক্রম ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে বলে জানা গেছে। এদিকে সরেজমিনে জানা যায়,শুরু থেকে প্রতিদিন টিকাকেন্দ্রে উপচেপড়া ভিড় থাকায় শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি বাড়ছে বলে ধারণা স্থানীয়দের। একাধিক শিক্ষার্থী ও অভিভাবক গণমাধ্যমকে জানান, ‘টিকা না নিলে বিদ্যালয়ে যাওয়া যাবে না এমন ঘোষণার পর শিক্ষার্থীরা দ্রুত টিকা নিতে কেন্দ্রে আসছে।

তবে টিকাকেন্দ্রে সামাজিক দূরত্ব মেনে টিকা দেওয়া দরকার। এতে করোনা টিকা নিতে আসা শিক্ষার্থীরা স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়তে পাড়ে। ভিড় নিয়ন্ত্রণ না করে টিকা প্রদান করায় করোনা সংক্রমণ বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যের কথা বিবেচনা করে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়া জরুরি। আজ বুধবার দুপুরে একাধিক শিক্ষক ও টিকা নিতে লাইনে থাকা শিক্ষার্থীরা বলেন, আমাদে র বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার নির্ধারিত তারিখে গিয়ে দেখেছি একাধিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তাদের টিকা নিতে এসেছে। আমাদের মতো আরও অনেক শিক্ষার্থী লাইনে আছে। এ কারণে টিকাকেন্দ্রে উপচেপড়া ভিড় সৃষ্টি হয়েছে। তবে রুমের ভিতরে গেলে বেশী সময় লাগেনা। সরাইল পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী টিকা নেওয়ার পর জানান, আমি এখন টিকা গ্রহন করেছি তবে তেমন কোন অসুবিধা হয়নি। সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.মো.নোমান মিয়া বলেন, রবিবার হতে সরাইলে শিক্ষার্থীদের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। তিনি বলেন,যাদের বয়স ১২ থেকে ১৮ বছর এদের ফাইজারের টিকা দেওয়া হচ্ছে। এই টিকা এসি রুমের মধ্যে দিতে হয়। সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসি রুম না থাকায়, সরাইল অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে একটি এসি রুমে ফাইজারের টিকা দেওয়া হচ্ছে। নির্ধারিত বিদ্যালয় ছাড়াও একই দিনে একাধিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা টিকা নিতে আসায় টিকাকেন্দ্রে বেশি ভিড় হচ্ছে। তবে আমরা এ পযর্ন্ত প্রায় সাত হাজার শিক্ষার্থীদের টিকা প্রদান করা হয়েছে।এ কার্যক্রম ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে বলে তিনি জানান।

মন্তব্য লিখুন

আরও খবর