সরাইলে আইন-শৃঙ্খলা ভার্চুয়াল সভায় বিদ্যুৎ গেল তিনবার

প্রকাশিত: ৭:৫৫ অপরাহ্ণ , ২৮ জুন ২০২১, সোমবার , পোষ্ট করা হয়েছে 4 weeks আগে

মো. তাসলিম উদ্দিন সরাইল( ব্রাহ্মণবাড়িয়া)

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরাইল উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা ভার্চুয়াল অনুষ্ঠিত হয়েছে।সোমবার (২৮জুন) সকাল দশটার দিকে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলার মাসিক আইন- শৃংখলা কমিটির সভার শুরুতে বিদ্যুতের আসা-যাওয়ার খেলা শুরু হয়। বিদ্যুৎ চলে যাওয়ার কারণে সভায় ভার্চুয়ালে যুক্ত হওয়া সকল সদস্যরা বিব্রত বোধ করলে সরাইল উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা আইন শৃংখলা সভার সভাপতি মো. আরিফুল হক মৃদুল দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, উপজেলার আইন- শৃঙ্খলা সভা অতি গুরুত্বপূর্ণ এ সময়ে বিদ্যুৎ এতোবার যাওয়া আশা করলে দুঃখ প্রকাশ করা ছাড়া আর কি !!
এসময় গত সভার কার্যবিবরণী উপস্থাপন করেন
সভার সভাপতিত্ব উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো.আরিফুল হক মৃদুল। উক্ত ভার্চুয়াল সভায় যুক্ত হয়ে বক্তব্য রাখেন, সরাইল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রফিক উদ্দিন ঠাকুর, উপজেলা সহকারী কমিশনার( ভূমি ) ফারজানা প্রিয়াঙ্কা, সরাইল থানা ওসি মো. আসলাম হোসেন, সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ কর্মকর্তা ডা. মো. নোমান মিয়া, পাকশিমুল ইউপি চেয়ারম্যান মো. সাইফুল ইসলাম, সরাইল উপজেলা রিপোর্টার্স ইউনিটি সাধারণ সম্পাদক মো. তাসলিম উদ্দিন, অরুয়াইল বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবু তালেব মিয়া,উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও)
মো. আরিফুল হক মৃদুল বলেন, করোনার এ সময় আসন্ন ঈদুল আজহায় কোরবানি বাজার ও জনসমাগম কম করার অনুরোধ জানান। এতে করে করোনার ঝুঁকি এবং সংক্রমন কমবে বলে আশা ব্যক্ত করেন এবং সবাইকে মাস্ক ব্যবহারে উৎসাহী করে, লকডাউন বাস্তবায়নের আহবান জানান।
ইউএনও আরো বলেন,সরকারি জায়গায় বা সরকারি সম্পত্তি কেউ দখল করলে, এমন অভিযোগ পাওয়া গেলে কুটুর হস্তে দমন করা হবে। কাউকে সরকারি জায়গা দখল করতে দেওয়া হবে না।
ইউএনও মো. আরিফুল হক মৃদুল বলেন, বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে সরাইল উপজেলাকে করোনা সংক্রমণের হাত থেকে নিরাপদ রাখতে আমাদের এ লকডাউন বাস্তবায়ন করতে হবে।
ইতোমধ্যে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে করোনা সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে মাস্ক বিতরণসহ বিভিন্ন এলাকায় মাইকিং করা হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বাহির না হওয়ার জন্য সবাইকে অনুরোধ জানান তিনি।
লকডাউন মেনে চলার জন্য সবার সহযোগিতা কামনা করে ইউএনও বলেন, লকডাউন চলাকালে জরুরি পরিষেবা ছাড়া এলাকায় সব যান চলাচল ও দোকানপাট বন্ধ থাকবে। হোটেল সকাল ৮ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। ভিতরে বসে কেউ খাবার খেতে পারবেন না, আইনের ব্যত্যয় ঘটলে তার বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে।
উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটির সভায় উপজেলা আইন শৃংখলা পরিস্থিতি ছাড়াও করোনা পরিস্থিতি, নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের মূল্য নিয়ন্ত্রন,সড়কের পাশে ময়লা ময়লা আবর্জনা ফেলা, মাদক দ্রব্যের অপব্যবহার প্রতিরোধ, ডাকাতি এবং আইন শৃংখলা পরিস্থিতিসহ সার্বিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

সভাগুলোতে সংশ্লিষ্ট কমিটির সদস্য, উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা, র‌্যাব, বিজিবি, মাদক নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর, জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা, জেল সুপারসহ জেলার সকল বিভাগীয় কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন

আরও খবর