সংযোগ রাস্তা নেই, ‘নিঃসঙ্গ’ একটি সেতু

প্রকাশিত: ৫:১৮ অপরাহ্ণ , ৪ জুলাই ২০২০, শনিবার , পোষ্ট করা হয়েছে 4 months আগে

মোঃ তাসলিম উদ্দিন সরাইল প্রতিনিধিঃ দু-তিন বছর
বেশি সময় ধরে খালের বুকে দাঁড়িয়ে আছে সেতু। নেই দু’ধারে রাস্তার কোন চি‎হ্ন। নির্মাণের পর কোন কাজেই আসেনি এটি। নির্মাণের পর ব্যবহার না হলেও সেতুটি রেলিঙে পাটের আঁশ শুকাতে দেখা যায়।পায়ে হেঁটে সেতু দেখতে গেলও অনেকটা দুর্গম পথ মাড়াতে হয়। কোনোভাবেই এ সেতু পার হওয়া সম্ভবপর না হওয়ায় এলাকাবাসি এর নাম দিয়েছেন ‘ভূতের পুল’।

ব্রাক্ষণবাড়িয়া সরাইল উপজেলার কালিকচ্ছ ইউনিয়নের নন্দী পাড়া এলাকায় কালিবাড়ি খালে ঠাঁয় দাঁড়িয়ে আছে এটি।সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার নন্দী পাড়া কালিবাড়ি খালের ঠিক মধ্যখানে নির্মিত সেতুটি দাঁড়িয়ে আছে। মানুষের চলাচলে ব্যবহার না হলে সেতুতে পাট আশঁ শুকনোর ব্যবস্থা হয়েছে। এর কোন পাশেই নেই রাস্তা। এক পাশে ফসলি জমি ও অন্য পাশে বাড়ি ঝুপঁঝাড়ের ছাড়া জমি। সেতু নির্মাণের পর কখনই রাস্তা করার কোন উদ্যোগ নেয়নি কেউ। স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, সেতুর লেখা সাইন র্বোডটি কে বা কারা ফেলে দিয়েছে তাই আনুমানিক তারা বলে ২০১৭ সালে এটি নির্মাণ করা হয়। সেতুটি এভাবে না করে যদি অন্য দিকে করা হততাহলে আজ কাজে লাগতো। দেখেন না এখন সেতুটি কোন কাজে আসছে না। সরকারের লাখ টাকার সেতু’আটানার’ কাজে আসে না-!এ ব্যপারে কালিকচ্ছ ইউপি চেয়ারম্যানের মোঃ শরাফত আলী’র সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান,২০১৭ সালে এটি নির্মাণ করা হয়। পরে রাস্তা না হওয়ায় ঝুলে থাকে এই সেতু। তবে যারা সেতুটি এই জায়গার করেছে তারা বলতে পারবে কেন করেছে। সেতুমুখে মাটি ভরাট না হওয়ায় এখন চলাচলে দুর্ভোগ সৃষ্টি হয়েছে।

এ বিষয়ে কথা হলে সরাইল উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ এস এম মোসা বলেন,সরকারের দেওয়া অর্থে সেতু করা হবে জনগণের চলাচলের সুবিধা হবে না। সেতুর সংযোগ রাস্তা নেই আগে কেউ বিষয়টি আমাকে জানায়নি।এ সেতু গুলোর ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্তব্য লিখুন

আরও খবর