শ্রীমঙ্গলে দুইটি চোরাই মোটরসাইকেলসহ একজন আটক

প্রকাশিত: ৭:৫২ অপরাহ্ণ , ৯ জুন ২০২৪, রবিবার , পোষ্ট করা হয়েছে 1 week আগে
ছবি- কালের বিবর্তন

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে দুইটি চোরাই মোটরসাইকেলসহ একজনকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার (৮ জুন) রাত সাড়ে ৯টার সময় শ্রীমঙ্গল শহরের ‘হোটেল ইছাকী এমোস’ এর সামনে থেকে তাকে আটক করা হয়। এসময় তার কাছ থেকে একটি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়।

আটক ব্যক্তির নাম মিল্টন কুমার সাহা ওরফে মো. সোহেল। আটকের পরে তাকে তল্লাশি করে পকেট থেকে মোটরসাইকেলের ৭টি মাস্টার কি (চুরির কাজে ব্যবহৃত চাবি) জব্দ করা হয়।

মিল্টন কুমার ওরফে মো. সোহেলকে আটকের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে মোটরসাইকেল চুরির বিষয় স্বীকার করে। পরবর্তীতে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাতে হোটেল ইছাকী এমোস এর আন্ডার গ্রাউন্ড থেকে আরো একটি মোটর সাইকেল উদ্ধারপূর্বক জব্দ করা হয়।

শ্রীমঙ্গল থানার পুলিশ পরিদর্শক মো. আমিনুল ইসলাম জানান, গত শুক্রবার (৮ জুন) সকালে শ্রীমঙ্গল শহরের আল মদিনা কমপ্লেক্সের কেয়ারটেকার সেলিম আলী তার ব্যবহৃত নীল রঙের হোন্ডা লিভো ব্র্যান্ডের একটি মোটরসাইকেল হোটেল ইছাকী এমোস এর আন্ডার গ্রাউন্ডে লক করে রাখেন।

সেদিন রাতে আটককৃত মিল্টন কুমার ওরফে সোহেলসহ ২/৩ জন সেলিম আলীর মোটরসাইকেলটি লক ভেঙে চুরি করে নিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় লোকজন মিল্টনকে আটক করে। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মোটরসাইকেল এবং ৭টি মাস্টার কি (চাবি) জব্দ করে। পরে আটক ব্যক্তির দেওয়ার তথ্যের ভিত্তিতে আরো একটি চোরাই মোটরসাইকলে জব্দ করা হয়।

পুলিশ জানায়, আটককৃত মিল্টন কুমার ওরফে সোহেলসহ কয়েকজন বিশেষভাবে তৈরি করা মাস্টার কি ব্যবহার করে দীর্ঘদিন যাবত দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে মোটরসাইকেল চুরি করে আসছে। সিডিএমএস যাচাই করে আটককৃত ব্যক্তির বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় অন্তত ২০টি মামলার তথ্য পাওয়া গেছে।

মিল্টন কুমার সাহা প্রকাশ মো. সোহেল (৪৪), কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব থানার ভৈরবপুর গ্রামের (উত্তরপাড়া, দানিস মঞ্জিল) হারাধন সরকার প্রকাশ মৃত জাকির খানের ছেলে। তিনি বর্তমানে চট্টগ্রামের দক্ষিণ পতেঙ্গা এলাকায় বসবাস করেন। মিল্টন কুমার ওরফে সোহেলসহ অজ্ঞাত ২/৩ জনের বিরুদ্ধে শ্রীমঙ্গল থানায় একটি চুরি মামলা রুজু করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

মন্তব্য লিখুন

আরও খবর