শার্শায় জমি সংক্রান্ত বিরোধে ০৬ জন গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি

প্রকাশিত: ৫:৪৭ অপরাহ্ণ , ২৪ এপ্রিল ২০২৪, বুধবার , পোষ্ট করা হয়েছে 3 weeks আগে
ছবি- কালের বিবর্তন

মোঃ সাহিদুল ইসলাম শাহীনঃ- অদ্য ২৪/০৪/২৪ ইং তারিখ সকাল আনুমানিক সকাল ৮টার দিকে যশোর জেলার শার্শা থানাধীন ০৭ নম্বর কায়বা ইউনিয়নের রাড়ীপুকুর গ্রামের শরিফুল মেম্বার এর ঘেরের দক্ষিণ পাশে মাঠের জমি সংক্রান্ত বিরোধে জমির ওয়ারেশদের মধ্যে হাতাহাতিতে দুই পক্ষের ০৬ জন সদস্য গুরুতর আহত হয়েছে। এদের মধ্যে ০৩ জনকে শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং বাকী ০৩ জনকে যশোর জেলা সদর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, অদ্য বুধবার ২৪ এপ্রিল সকাল আনুমানিক ৮টার দিকে শার্শা থানাধীন কায়বা ইউনিয়নাধীন রাড়ীপুকুর পূর্ব পাড়া শরিফুল মেম্বার এর ঘেরের দক্ষিণ পাশে ২.৫০(আড়াই বিঘা) মাঠের জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধের জের ধরে আপন চাচাত ভাইয়ে ভাইয়ের মধ্যে সৃষ্ট মারামারির ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে দখলে থাকা প্রথম পক্ষ- (১) আলিমুদ্দিন (৪০) (২) ওমর খৈয়াম (৩) এলিজা (৩৫) সর্ব পিতা- মৃত জমাত আলী সরদার (৪) সালেহা (৩৫) স্বামী আলিমুদ্দিন, (৫) মামুন (২১) পিতা- ওমর খৈয়াম সর্ব গ্রাম-কায়বা পশ্চিম কোটা, থানা- শার্শা, জেলা-যশোর গণ অদ্য তারিখে উক্ত সময়ে উক্ত জমিতে তাদের লাগানো ধান পূর্বে কেটে রাখা জমিতে বিছানো ধান বাধতে গেলে ২য় পক্ষ – (১) নাসির (৫০) কি পিতা- আবুল (২) পারভীনা (৪০) স্বামী-নাসির (৩) মৌসুমী(২২) পিতা-নাসির (৪) মনিরুল (২৮) পিতা- মৃত জোহর আলী সরদার সর্বগ্রাম কায়বা পশ্চিম কোটা, থানা- শার্শা,(৫) জোহর আলী ওরফে সালাউদ্দিন পিতা-অজ্ঞাত গ্রাম কানাইরালি, থানা- ঝিকরগাছা,জেলা-যশোর গণ- প্রথম পক্ষকে ধান বাধতে নিষেধ করতে গেলে উভয় পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে উভয়পক্ষের মধ্যে লাঠি সোটা এবং ধানকাটা কাচী নিয়ে মারামারির ঘটনা ঘটে।

মারামারিতে প্রথম পক্ষের-(১) আলিবুদ্দিন- মাথায় আঘাত পেয়ে রক্তাক্ত যখম প্রাপ্ত হয় (২) সালেহা-ডান হাতে নীলাফোলা যখম প্রাপ্ত হয় (৩) এলিজা-দুই হাতের কুনই হতে কবজা পর্যন্ত নীলাফোলা যখম প্রাপ্ত হয় বর্তমানে প্রথম পক্ষের আহত ভিকটিমগণ শার্শা নাভারণ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তি আছে এবং সকলের অবস্থা শঙ্কামুক্ত। এবং

দ্বিতীয় পক্ষের-(১) মৌসুমী- মাথায় রক্তাক্ত যখম প্রাপ্ত হয় (২) পারভীনা-মাথায় এবং সমস্ত শরীরে নীলাফোলা যখম প্রাপ্ত হয় (৩) মনিরুল- সমস্ত শরীরে নীলাফোলা যখম প্রাপ্ত হয় । দ্বিতীয় পক্ষের আহত ভিকটিমগণ সকলেই শঙ্কামুক্ত এবং আহত ভিকটিমগণ সকলেই বর্তমানে যশোর সদর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি আছে বলে জানা যায়।

বাগআঁচড়া পুলিশ ফাড়ি সুত্রে জানা গেছে,এ ঘটনায় কেউ গ্রেফতার হয়নি তবে এ সংক্রান্তে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন। ঘটনার পরবর্তীতে সেখানকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

যেহেতু, উক্ত জমিতে দ্বিতীয় পক্ষেরও ওয়ারিশ সূত্রে অংশ পাওনা রয়েছে সেহেতু পরবর্তীতে এটাকে কেন্দ্র করে আরো বড় ধরনের মারামারি সহ খুন জখমের মত ঘটনা ঘটতে পারে বলে স্থানীয়ভাবে জানা গেছে।

মন্তব্য লিখুন