• লিড নিউজ সারাদেশ
  • মুরাদনগর কোরবানপুরে প্রাইভেটকার পানিতে ডোবে স্বামী-স্ত্রী ও ড্রাইভার নিহত

পিতাকে দেখার আগেই স্বামীসহ মারা গেলেন নবীনগরের পারভীন, দুর্ঘটনার দেড় ঘন্টাপর ঢাকায় পিতার মৃত্যু

মুরাদনগর কোরবানপুরে প্রাইভেটকার পানিতে ডোবে স্বামী-স্ত্রী ও ড্রাইভার নিহত

প্রকাশিত: ১:৩১ পূর্বাহ্ণ , ১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার , পোষ্ট করা হয়েছে 4 years আগে

এম কে আই জাবেদ, মুরাদনগর (কুমিল্লা): কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার দৌলতপুর – মাধবপুর সড়কের কোরবানপুর এলাকায় একটি প্রাইভেটকার খালের মধ্যর পরে পানিতে ডোবে ঘটনাস্থলে স্বামী-স্ত্রী ও চালকের মৃত্যু হয়েছে।

স্থানীয় কোরবানপুর গ্রামের গোলাম মোস্তফা সুমন জানান, ১১টা ১৫ মিনিটের দিকে কালো রংয়ের একটি প্রাইভেটকার (চট্রঃ মেট্রো- গ, ১২-৩৬৯৯) নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে পানিতে পরে ডোবে যায়। আমরা এলাকাবাসী দির্গক্ষণ চেষ্টা করে গাড়ী থেকে ৩ জনকে উদ্ধার করি। তবে ৩জনই গাড়ীর ভিতর থেকে মৃত উদ্ধার করা হয়।

নিহতদের সাথে থাকা পরিচয়পত্র দেখে জানাযায়, নিহতরা হলেন ব্রহ্মণবাড়ীয়া জেলার নবীনগর উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের জুলাইপার গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে সাদ্দাম হোসেন (বয়স ২৭), এবং তার স্ত্রী পাশ্ববর্তী বাঘাউড়া গ্রামের আবুবকর ছিদ্দিকের মেয়ে পারভীন আক্তার (২৩) এবং গাড়ী চালক নোয়াখালী কবিরহাট উপজেলার সোনাদিয়া গ্রামের আবুল বাশারের ছেলে আব্দুর রহমান (২৮)।

জানাযায়, নবীনগর উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের বাঘাউড়া গ্রামের আবুবকর ছিদ্দিকের মেয়ে নিহত পারভীন আক্তার তাঁর স্বামী সাদ্দাম হোসেনের সাথে চট্টগ্রামে বসবাস করতেন। সম্প্রতি তার পিতা আবুবকর ছিদ্দিক (১০২) অসুস্থ হয়ে ঢাকার একটি চিকিৎসা নিচ্ছেন। এই সংবাদে পিতাকে দেখতে স্বামী সাদ্দাম হোসেনকে নিয়ে চট্টগ্রাম থেকে প্রাইভেট কার ভারা করে যাচ্ছিলেন। কিন্তু সড়ক দুর্ঘটনায় পানিতে ডোবে ৪ বছরের দাম্পত্য জীবনের সলিল সমাধি ঘটে বাঙ্গরা বাজার থানার কোরবানপুর গ্রামে। নিহত দম্পত্তির ৪ বছর সংসার জীবনে কোন সন্তানাদি ছিল না।

এ বিষয়ে বাঘাউড়া গ্রামের মৃত তারা মিয়া ছেলে জাকির হোসেন জানান, গুরুতর অসুস্থ পারভীন আক্তারের পিতা ও আমার চাচা ছিদ্দিকুর রহমান (১০২) বয়সজনিত কারনে আজ মঙ্গলবার গাড়ী দুর্ঘটনার ঘন্টা দেড়েক পর দুপর ১টার দিকে ঢাকার একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

একই দিনে স্বামী, মেয়ে এবং মেয়ের স্বামীর মৃত্যুের শোকে তাঁর চাচি বারবার জ্ঞান হারাচ্ছেন। নিহতদের পরিবার ও এলাকায় শোকের পরিবেশ বিরাজ করছে বলেও জানান।

বাঙ্গরা বাজার থানা অফিসার ইনচার্জ কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৩টি লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। নিহতদের পরিবারের লোকজনের সাথে আলোচনা করে যথাযত ভাবে লাশ হস্তান্তর করা হবে। শুনেছি পারভীন আক্তার তার অসু্স্থ পিতাকে দেখতে যাওয়ার পথে স্বামীসহ মারা যান এবং তাঁর পিতাও ঢাকাতে মৃত্যুবরণ করেন। ঘটনাটি অত্যান্ত বেদনাদায়ক।

দুর্ঘটনাস্থল কোরবানপুর পরিদর্শন করেন মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার অভিষেক দাশ, বাঙ্গরা বাজার থানা ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার, স্থানীয় পূর্ব ধৈইর ইউপি চেয়ারম্যান বন কুমার শিব প্রমুখ।

বিষয়:

মন্তব্য লিখুন