ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ১টি হাসপাতাল ও ১টি ফার্মেসীকে ৭ হাজার টাকা জরিমানা

প্রকাশিত: ৭:৪৫ অপরাহ্ণ , ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, রবিবার , পোষ্ট করা হয়েছে 4 years আগে
ছবি - কালের বিবর্তন

জহির রায়হান : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় একটি হাসপাতালের প্রয়োজনীয় বৈধ কাগজপত্র না থাকায় ও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ রাখার অপরাধে অপর ১টি ফার্মেসিকে মোট ৭ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

আজ রবিবার (৯ ফেব্রুয়ারী) বিকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের মৌলভীপাড়ায় এ ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এসময় শহরের মৌলভীপাড়ার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রশান্ত বৈদ্য ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কিশোর কুমার দাসের পরিচালিত মোবাইল কোর্টে শহরের মৌলভীপাঁড়ায় অবস্থিত হিউম্যান জেনারেল হাসপাতালের ম্যানেজারকে মেডিকেল প্রাকটিস এবং বেসরকারি ক্লিনিক ও ল্যাবরেটরী (নিয়ন্ত্রন) অধ্যাদেশ ১৯৮২ এর ৮ ধারা লঙ্ঘনের কারনে ৫ হাজার টাকা এবং আধুনিক শিশু ও জেনারেল হাসপাতালের ম্যানেজারকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৫১ ধারা লঙ্ঘনের জন্য ২ হাজার টাকাসহ মোট ৭ হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়।

এছাড়াও এ্যাপল আইটি ইন্সটিটিউট নামক একটি প্রতিষ্ঠানে ‘বিশ্বখ্যাত অামেরিকান এ্যাপল ব্র্যান্ড ও ব্রহ্মণবাড়িয়ার ১নং কোয়ালিফাইড আইটি নামের ভূয়া লেখা ব্যবহার এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সিলমোহরযুক্ত লঘু ব্যবহার’ করে শহরের আনাচে-কানাচেতে লাগানো পোস্টার ও লিফলেট আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে অপসারণ করে পুড়িয়ে ফেলার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এসময় আনসার বাহিনীর কয়েকজন সদস্য ছাড়াও তাঁদের সঙ্গে ছিলেন পেশকার গোলাম কিবরিয়া।

ভ্রাম্যমান আদালতের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে জানিয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রশান্ত কুমার বৈদ্য ও কিশোর কুমার দাস বলেন, ভোক্তা অধিকার আইনে ১টি হাসপাতাল ও ১টি ফার্মেসী থেকে ৭ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। একইসাথে ভবিষ্যতের জন্য তাদেরকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন