বাংলাদেশকে ৯ উইকেটের ব্যবধানে হারিয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই পাকিস্তানের জয়

প্রকাশিত: ৩:৩১ পূর্বাহ্ণ , ২৬ জানুয়ারি ২০২০, রবিবার , পোষ্ট করা হয়েছে 4 years আগে
বাংলাদেশ পাকিস্তান ক্রিকেট
ফাইল ছবি

স্পোর্টস ডেস্ক : লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশকে ৯ উইকেটের ব্যবধানে হারিয়ে তিন ম্যাচ সিরিজে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছে পাকিস্তান। বাংলাদেশের দেওয়া ১৩৭ রানের জয়ের লক্ষ্য ২০ বল হাতে রেখেই টপকে যায় পাকিস্তান। পাকিস্তানের হয়ে অর্ধশতক তুলে নেন বাবর আজম এবং মোহাম্মদ হাফিজ।

জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই শফিউল ইসলামের শিকার হয়ে প্যাভিলিয়েন ফেরেন আহসান আলী। দলীয় ৬ রানে আউট হওয়ার আগে রানের খাতা শূন্য রয়ে যায় আহসান আলীর। তবে এরপরেই অভিজ্ঞ মোহাম্মদ হাফিজকে সঙ্গী করে ঘুরে দাঁড়ায় পাকিস্তান। অধিনায়ক বাবর আজম এবং মোহাম্মদ হাফিজ উভয়ই তুলে নেন অর্ধশতক। আর তাতেই জয়ের সুবাস পেতে শুরু করে স্বাগতিকরা। বাবর আজম এবং মোহাম্মদ হাফিজ দুইজনই তুলে নেন অর্ধশতক।

অধিনায়ক বাবরের ৬৬ এবং মোহাম্মদ হাফিজের ৬৭ রানে ২০ বল হাতে রেখেই জয় তুলে নেয় পাকিস্তান। আর সেই সঙ্গে নিশ্চিত করে সিরিজ জয়ও। এর আগে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৫ উইকেটে জিতে ১-০’তে এগিয়ে গিয়েছিল স্বাগতিকরা। আর শনিবার (২৫ জানুয়ারি) দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশকে ৯ উইকেটের ব্যবধানে হারিয়ে সিরিজ নিশ্চিত করল পাকিস্তান।

বাংলাদেশের হয়ে তিন ওভারে ২৭ রানের বিনিময়ে একটি উইকেট তুলে নেন শফিউল ইসলাম।

এর আগে লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। বাংলাদেশ সময় দুপুর তিনটায় শুরু হয় ম্যাচটি। সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে একাদশে এক পরিবর্তন নিয়ে মাঠে বাংলাদেশ। মোহাম্মদ মিঠুনের পরিবর্তে মেহেদি হাসানকে দলে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে এই ম্যাচে। অন্যদিকে অপরিবর্তি একাদশ নিয়েই মাঠে নামে স্বাগতিক পাকিস্তান।

ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই ওপেনার মোহাম্মদ নাইম ফিরে যান কোনো রান করার আগেই। দলীয় ৫ রানেই দ্বিতীয় ওভারের ২য় বলে শাহিন শাহ্‌ আফ্রিদির বলে উইকেটের পেছেন ক্যাচ তুলে দিয়ে ফিরেন এই ওপেনার। এরপর উইকেটে আসেন মেহেদি হাসান। সদ্য শেষ হওয়া বিপিএলে দারুণ অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে জাতীয় দলে ডাক পান এই ক্রিকেটার।

দলীয় ৪১ রানেই ৩ উইকেট হারিয়ে বিপর্যস্ত বাংলাদেশকে সম্মানজনক সংগ্রহের পথে রাখেন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল, তাকে সঙ্গে দেন আফিফ হোসেন। তামিমের সঙ্গে ৪৫ রানের জুটি গড়ে ব্যক্তিগত ২১ রানে। অন্যরা উইকেটে আসা যাওয়ার মিছিলে থাকলেও ৪৪ বলে নিজের অর্ধশতক তুলে নিয়ে দলকে সম্মানজনক সংগ্রহের পথে রাখেন। ব্যক্তিগত ৫৩ বলে ৬৫ করে রান ফেরেন তামিম। সিরিজের প্রথম ম্যাচেও রান আউটে কাটা পড়েছিলেন তামিম। শেষ পর্যন্ত ৬ উইকেট হারিয়ে ১৩৬ রান তোলে বাংলাদেশ।

পাকিস্তানের হয়ে ৪ ওভারে ২০ রান দিয়ে ২টি উইকেট নেন মোহাম্মদ হাসনাইন। এছাড়া একটি করে উইকেট নেন শাদাব খান শাহিন শাহ্‌ আফ্রিদি এবং হ্যারিস রউফ।

মন্তব্য লিখুন