নিখোঁজের ১৪ দিন পরও সন্ধান মিলেনি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মুফতি মিজানুর রহমানের, পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত: ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ , ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, বুধবার , পোষ্ট করা হয়েছে 2 weeks আগে

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি॥ দু’সপ্তাহেও খোজ পাওয়া যায়নি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উদীয়মান ইসলামী বক্তা মুফতী মাওলানা মিজানুর রহমান কাসেমীর। তার সন্ধান পেতে সংবাদ সম্মেলন করেছে পরিবার।

সোমবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গত ১লা সেপ্টেম্বর হাটহাজারী থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নিজ বাড়িতে ফেরার পথে নিখোঁজ হন তিনি। মিজানুর রহমান ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জের শরীফপুর কান্দাপাড়া গ্রামের আবদুল ওয়াহাবের ছেলে। তিনি ভারতের দেওবন্দ মাদ্রাসা থেকে মুফতী এবং হাটহাজারী মাদ্রাসা থেকে মোফাচ্ছের কোর্স সম্পন্ন করেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জানানো হয়,১লা সেপ্টেম্বর দুপুর আড়াইটায় স্ত্রীকে মোবাইল ফোনে মিজানুর রহমান জানান,চট্টগ্রাম হয়ে তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া আসছেন।

এরপর পৌনে ৫ টার দিকে শওকত নামে এক বন্ধুকে মিজানুর রহমান ফোন করে জানান তাকে ৪ জন অপরিচিত লোক আটক করে অবান্তর কথাবার্তা বলছে। বিষয়টি শওকত মিজানুর রহমানের স্ত্রীকে জানান। এব্যাপারে পরদিন হাটহাজারী থানায় মিজানুর রহমানের আরেক বন্ধু মো: নাছির উদ্দিন একটি সাধারন ডায়েরী করেন। থানা পুলিশ তার মোবাইল ট্র্যাকিং করে দেখতে পান সিলেটের জকিগঞ্জের রতনগঞ্জ বাজার এলাকায় তার অবস্থান। পরে সেখানকার থানা পুলিশ সম্ভাব্য কয়েকটি স্পটে তল্লাশী করে তার সন্ধান পায়নি।

এরইমধ্যে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি নিখোজ মিজানুর রহমানের মোবাইল নাম্বার থেকে ফোন পরিবারের কাছে ৪ লাখ টাকা দাবী করে। পরিবারের লোকজন অভিযোগ করেন এব্যাপারে তারা র‌্যাবের সহায়তা চেয়েও পাচ্ছেননা। নিখোঁজ মুফতীর সন্ধান পেতে প্রধানমন্ত্রী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন পরিবারের সদস্যরা। সংবাদ সম্মেলনে মিজানুর রহমানের বৃদ্ধ পিতা আব্দুল ওয়াহাব, শ্বশুর এরশাদুল হক, হাফেজ মো: ইদ্রিস এবং মুফতী এনামুল হাসান উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন

আরও খবর