• শীর্ষ সংবাদ সারাদেশ
  • চাঁদাবাজির অভিযোগ ওঠায় সংবাদ প্রকাশের পর পলাশবাড়ীর কিশোরগাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত

চাঁদাবাজির অভিযোগ ওঠায় সংবাদ প্রকাশের পর পলাশবাড়ীর কিশোরগাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত

প্রকাশিত: ২:১০ অপরাহ্ণ , ৬ এপ্রিল ২০২০, সোমবার , পোষ্ট করা হয়েছে 4 years আগে
কিশোরগাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি আসলাম প্রমানিক টুটুল ও সাধারণ সম্পাদক মিজানুল রহমান।
গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি: স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের নিকট হতে গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার কিশোরগাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি আসলাম প্রমানিক টুটুল ও সাধারণ সম্পাদক মিজানুল রহমান স্বপনের বিরুদ্ধে  চাঁদাবাজির অভিযোগ ওঠায় এমন সংবাদ প্রকাশের পর  অবশেষে আজ ৬ এপ্রিল সোমবার  বাংলাদেশ ছাত্রলীগ গাইবান্ধা জেলা শাখার সভাপতি মোহাম্মাদ আসিফ ও সাধারণ সম্পাদক মোসাদ্দেক হোসেন মামুন স্বাক্ষরিত দলীয় পত্রে জানানো হয় । বাংলাদেশ ছাত্রলীগ গাইবান্ধা জেলা শাখার জরুরী সিদ্ধান্ত মোতাবেক জানানো যাচ্ছে যে,পলাশবাড়ী উপজেলার ১ নং কিশোরগাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ন হওয়ায় উক্ত কমিটি বিলুপ্ত করা হলো।
উল্লেখ্য,গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার কিশোরগাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি আসলাম প্রমানিক টুটুল ও সাধারণ সম্পাদক মিজানুল রহমান স্বপনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ করেছেন পার কিশোরগাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রেজাউল করিম। এঘটনায় তিনি পলাশবাড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগের বরাবরে একটি অভিযোগ দাখিল করেছেন । এ অভিযোগে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনে সুপারিশ করেছেন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়,গত ৩ এপ্রিল রাত  আনুমানিক ১১ টা ৫০ মিনিটের সময়  প্রাচী টপকিয়ে অভিযুক্ত ব্যক্তিরাসহ ১০/১২ জন রেজাউল করিমের বতসবাড়ীতে ঢুকে গালি গালাজ ও নানা ভাবে ভয়ভীতি সহ থানা পুলিশের ভয়ভীতি দেখিয়ে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করে এ টাকা দিতে অস্বীকার করায় তারা রেজাউল করিমের ৪ বছরের শিশুকে তুলে নিয়ে যাওয়া হুমকি দিলে প্রধান শিক্ষক রেজাউল করিম ডাকচিৎকার করিতে ধরিলে অভিযুক্তরা তাহার মুখ চেপে ধরে নানা ভয়ভীতি দেখায়। এরপর উপায় অন্তর না পেয়ে ১৯ হাজার টাকা দেয় রেজাউল করিম। টাকা নিয়ে যাওয়ার সময় এ ঘটনাটি কাউকে না বলতে বলে। বললে তার সন্তানের ক্ষয়ক্ষতি সহ কন্যাকে উঠে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দেয় ও রেজাউল করিমের দুটি ভিডিও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরে বিষয়টি স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতাদের বলিলে তাদের পরামর্শক্রমে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সম্পাদকের নিকট এ অভিযোগ করেন প্রধান শিক্ষক রেজাউল করিম। এমন একটি সংবাদ প্রকাশের পর জেলা ছাত্রলীগের জরুরী সিদ্ধান্ত মোতাবেক কিশোরগাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত করা হলো।

মন্তব্য লিখুন

আরও খবর