গাইবান্ধা-৩ আসনে উপ নির্বাচনে প্রতীক পেলেন প্রার্থীরা

প্রকাশিত: ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ , ২ মার্চ ২০২০, সোমবার , পোষ্ট করা হয়েছে 4 years আগে

গাইবান্ধা প্রতিনিধি: গাইবান্ধা-৩ আসনে উপ-নির্বাচন উপলক্ষ্যে বৈধ প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ সম্পন্ন হয়েছে। আজ ১ মার্চ রবিবার গাইবান্ধা জেলা নির্বাচন অফিস কার্যালয়ে প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়। প্রতীক পেলেন যারা- বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী অ্যাডভোকেট উম্মে কুলসুম স্মৃতিকে নৌকা, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)র প্রার্থী ডা. মইনুল হাসান সাদিককে ধানের শীষ, জাতীয় পার্টির প্রার্থী মাইনুর রাব্বী চৌধুরী রুমানকে লাঙ্গল ও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) প্রার্থী এসএম খাদেমুল ইসলাম খুদিকে মশাল প্রতীক দেয়া হয়েছে।

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন গাইবান্ধা জেলা নির্বাচন অফিসার মাহাবুবুর রহমান। তিনি জানান, গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্লাপুর-পলাশবাড়ী) আসনটির উপনির্বাচনে বৈধ প্রার্থী হিসেবে ওই ৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করবেন। তিনি আরো বলেন সাদুল্যাপুর উপজেলার ১১ ইউনিয়ন পলাশবাড়ী উপজেলার একটি পৌরসভাসহ ৯ ইউনিয়নের ৪ লাখ ১১ হাজার ৮৫৪ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

উলেখ্য, অনুষ্ঠিত হওয়া একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাইবান্ধা-৩ আসনে আওয়ামী লীগের নির্বাচিত সংসদ সদস্য ডা. ইউনুস আলী সরকার গত ২০১৯ সালের ২৭ ডিসেম্বর মারা যান। পরে আসনটি শূন্য ঘোষণা করে সংসদ সচিবালয়। ফলে আগামী ২১ মার্চ আসনটিতে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

গাইবান্ধায় পালিত হয়েছে পুলিশ মেমোরিয়াল ডে

গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি
সারাদেশের ন্যায় গাইবান্ধায় পালিত হয়েছে পুলিশ মেমোরিয়াল ডে ২০২০ দিবসটি উৎযাপন উপলক্ষে অস্থায়ী পুলিশ লাইন মাঠে প্রতিকী স্মৃতিস্তম্ভে নিহত পুলিশ সদস্যদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়। পরে পুলিশ লাইনে কর্তব্যরত অবস্থায় জীবন উৎসর্গকারী পুলিশ সদস্যদের স্মরণে আলোচনা সভায় নিহত পুলিশ সদস্যদের পরিবারবর্গকে স্বীকৃতি স্মারক ও উপহার প্রদান করা হয়।

জেলা পুলিশের আয়োজনে ও সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপারের সঞ্চালনায় আজ ১ মার্চ রবিবারে এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মুহাম্মাদ তৌহিদুল ইসলাম । সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আবু বকর সিদ্দিক ,গাইবান্ধা পৌরসভার আওয়ামীলীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবির মিলন । এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ময়নুল হক, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ খান মোঃ শাহরিয়ার, গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি মেহেদী হাসান ,সাংবাদিক সরকার শহিদুজ্জামান।

সভায় বক্তরা বলেন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য দায়িত্ব পালনের সময় তাদের আত্মত্যাগকারী পুলিশ সদস্যদের প্রতি জনগণ সর্বদা কৃতজ্ঞ এবং তাদের আত্মত্যাগ পুলিশ বাহিনীকে গর্বিত করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার, পুলিশ কর্মকর্তা এবং কর্তব্যরত অবস্থায় প্রান হারানো সদস্যদের জন্য ২০১৩ সাল থেকে পুলিশ স্মৃতি দিবস পালনের অনুমোদন দিয়েছেন এছাড়াও বর্তমান সময়ে কর্তব্যরত অবস্থায় কোন পুলিশ সদস্য মারা গেলে বিভাগীয় সম্মান ও গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে নিহত পুলিশ সদস্যদের পরিবারের সদস্যদের আগামী দিনগুলিতে সব ধরণের সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস করেন জেলা পুলিশ সুপার তৌাহদুল ইসলাম । পরে ২৬ জন নিহত পুলিশ সদস্যের নিকটআত্মীয়দের হাতে ফুল ও উপহার সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। এসময় পলাশবাড়ী থানার অফিসার মাসুদুর রহমানসহ জেলার অন্যান্য থানার অফিসার ইনচার্জগণ ও জেলা পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।