কুমিল্লার মুরাদনগর মাইকিং করে ডাকাত সন্দেহে গণপিটুনিতে নিহত ২

প্রকাশিত: ৭:২৮ অপরাহ্ণ , ১৪ জানুয়ারি ২০২৩, শনিবার , পোষ্ট করা হয়েছে 2 weeks আগে

এম কে আই জাবেদ, মুরাদনগর: কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার দারোরা ইউনিয়নের পালাসুতা গ্রামে ডাকাত সন্দেহে তিনজনকে গণপিটুনি দেয় এলাকাবাসী। শুক্রবার ভোরে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২ জন মৃত্যু বরণ করেন এবং ১ জন আশংকা জনক রয়েছেন। নিহতরা হলেন কুমিল্লা মুরাদনগর থানার কাজিয়াতল গ্রামের আবদুস সালাম মিয়ার ছেলে নুরু মিয়া(২৮), পালাসুতা গ্রামের গিয়াসউদ্দিনের ছেলে ইসমাইল হোসেন (২৭) এবং গুরতর আহত হলেন কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার বাগমারা গ্রামের সেলিম মিয়ার ছেলে মোঃ শাহজাহান (২৭)।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কিছুদিন ধরে বিভিন্ন গ্রামে ডাকাতের উৎপাত বৃদ্ধি পেয়েছে। ঘটনার দিন রাতে এলাকাবাসী জানতে পারে একদল ডাকাত দেশীর অস্ত্র নিয়ে মাইক্রোবাস যোগে ছালিয়াকান্দি ইউপির বোরারচরে উৎতপেতে ছিল। কিন্তু জনতার ধাওয়া খেয়ে ৩ জন সন্দেহভাজন ডাকাত সদস্য পালাসুতা গ্ৰামে একটি বাড়িতে আশ্রয় নেয়। ঐ গ্ৰামের মসজিদের মাইকে ডাকাতদের প্রতিরোধে আহ্বান করা হলে উত্তেজিত জনতা ৩ জন সন্দেহভাজন ডাকাতদের গণপিটুনি দেয়‌ ।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন খন্দকারের সহযোগিতায় মুরাদনগর থানা পুলিশ মুমুর্ষ অবস্থায় ৩ জনকে উদ্ধার করে মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। আশংকাজনক অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ৩ জনকে কুমেক হাসপাতালের পাঠানো হলে শুক্রবার সকালে ২ জনের মৃত্যু হয়।

মুরাদনগর থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, সংবাদ পেয়ে পুলিশ আহত অবস্থায় ৩ জনকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করা হলে নুরু ও ইসমাইল নামের দুই জনের মৃত্যু হয়েছে এবং শাহ জাহান নামে একজন চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন। এই ঘটনার বিষয়ে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য লিখুন

আরও খবর