কলের পানি নিয়ে দু‍‍`পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে ৭ জন আহত

প্রকাশিত: ৯:৩৯ অপরাহ্ণ , ৭ জুলাই ২০২১, বুধবার , পোষ্ট করা হয়েছে 3 weeks আগে

মোঃনিয়ামুল আকন্ঞ্জি,স্টাফ রিপোর্টার:

জেলার আশুগঞ্জ উপজেলায় এক বাড়ির কলের পানি অন্য বাড়িতে যাওয়াকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে অন্তত ৭ জন আহত হয়েছে।

বুধবার (৭ জুলাই) বিকেলে উপজেলার লালপুর ইউনিয়নের হোসেনপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, লাইলী আক্তার (৩০), নাসির মিয়া (৫৩), মাজু মিয়া (৫০), ওসমান (২০) কালু মিয়া (২৭), মোতাবিল মিয়া (৬৩), শামসুনাহার (৪৫)। আহতরা সবাই হোসেনপুর গ্রামের মধ্যপাড়া এলাকার কেরানীবাড়ির।

হাসপাতাল ও স্থানীয় মেম্বার লিটন দাসের সূত্রে জানা যায়, কেরানিবাড়ির ফারুক মিয়ার স্ত্রী নাছিমা তার কলে হাড়ি-পাতিল ধোঁয়ার পানি একই বাড়ির রফিক মিয়ার ছেলে নাসিরের বাড়িতে যায়। এ নিয়ে নাছিমার চাচা মোতালেব মিয়ার সাথে নাসির মিয়া বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। পরে একপর্যায়ে উভয় পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে মারামারি শুরু করেন। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ৭ সাত আহত হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। আহতদেরকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, কয়েকদিন আগে নাছিমা তার কলের পানি নাসিরের বাড়ির উপর দিয়ে যায় বলে এ-বাবদ নাসিরকে ১০ হাজার টাকা দেন। নাছিমার কলের পানি নাছিরের বাড়ির উপর দিয়ে গেলেও তখন তার কোন অভিযোগ থাকবে না বলে দু’পক্ষের মধ্যের ঝামেলাটি সমাধান হয়। তারপর তারা আজকে আবার কলের পানিকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষই মারামারিতে জড়িয়ে পড়েন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের কত্যবরত চিকিৎসক ডা. জামাল ভূইয়া বলেন, আহতদের চিকিৎসা দিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের কারো অবস্থা আশঙ্কাজনক না। তাদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

এব্যাপারে আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাবেদ মাহমুদ জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ৭ জন আহত হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। হাসপাতালেও পুলিশ গিয়ে খোঁজ নিয়েছে।। দু-পক্ষের সাথে কথা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত চলছে পরে বিস্তারিত জানানো হবে।

মন্তব্য লিখুন

আরও খবর